নিজেকে ‘তারছেঁড়া’ বললেন নোবেল

নিজেকে 'তারছেঁড়া' বললেন নোবেল

ভারতের জি বাংলা টিভির রিয়েলিটি শো সারেগামাপার মাধ্যমে পরিচিতি পেয়েছেন বাংলাদেশের মাইনুল আহসান নোবেল। তার পরিচিতি হয়ে উঠে বাংলাদেশের তারকা শিল্পীদের গান কভার করেই। কিন্তু তাদেরকেও বিরুদ্ধে উদ্ভট সমালোচনা করেও নানান সময় বিতর্কের মুখে পড়তে হয়েছে নোবেলকে। বিতর্কের কারনে একাধিক বার খবরের শিরোনামও হয়েছেন তিনি। 

মাইনুক আহসান নোবেল আর বিতর্ক যেনো একই মুদ্রার এপিট-ওপিট। বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত নিয়ে ও সবার প্রিয় তারকা নগর বাউল জেমসও সমালোচনা করেছেন এই সমালোচক নোবেল। আর এসব কারনেই সবার অপ্রিয় হয়ে উঠেন। যারা বিভিন্ন সময় নোবেলকে গালাগালিও করেছেন। আর এবার তাদের উদ্দ্যেশেই নিজের ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিলেন নোবেল। 

Advertisements

শনিবার (১৭ এপ্রিল) নিজের ফেসবুকে নোবেল লেখেন, আসসালামু আলাইকুম। ব্যক্তি মাঈনুল আহসান নোবেল। নামটা আকীকা করে জন্মদাতা পিতা-মাতা রেখেছেন। তবে ‘নোবেল ম্যান’ অথবা আপনাদের আলোচিত-সমালোচিত, ভালোবাসার অথবা ঘৃণিত আজকের এই ‘সঙ্গীতশিল্পী নোবেল’। এই নাম অথবা ব্যাক্তিত্বের জন্মদাতা; পিতা বলেন, মাতা বলেন, ভাই অথবা বোন যাই বলেন, সব কিন্তু ‘আপনারা’ নিজেরাই। সুতরাং মা-বাপ তুলে গালাগালি, কটুকথা, বেশি কথা যাই বলছেন; আমি ব্যাক্তি নোবেলের বিন্দুমাত্র গায়ে লাগছে না। তাতে আপনি নিজের সন্তানকেই গালাগাল করছেন বলে আমি মনে করি।

তিনি আরও লেখেন, হ্যাঁ, মানুষটা আমি তারছেঁড়া। না হলে কী ১৬৫টি দেশের ২৫ কোটি বাঙালির তার ছিঁড়তে পেরেছি? তবে মুখোমুখি, সামনে এসে ব্যক্তি নোবেলকে মন্তব্য করার দুঃসাহস করার আহ্বান জানাচ্ছি। পরিণতির দায়ভার আমি নিতে পারবো না। ভালো থাকবেন। অনেক ভালোবাসা। ফি-আমানিল্লাহ্।

নোবেলের এ পোস্টটিও ইতিবাচক হিসেবে নেয়নি নেটিজেনরা। এখানেও তাকে গালাগাল করেছেন অনেকে। দুই ঘণ্টায় পোস্টটিতে রিয়েক্ট পড়েছে ১৫ হাজার। আর কমেন্টস পড়েছে ৪ হাজার। 

এর আগে চোখে মুখে মাস্ক পরে ছবি শেয়ার করার জন্যও তাকে একহাত নিয়েছিল নেট দুনিয়ার বাসিন্দাদের একাংশ।

আঁধার আলো/এএমডি