ক্যান্সার চিকিৎসায় নিলামে উঠছে মেসির বুট

ক্যান্সার চিকিৎসায় নিলামে উঠছে মেসির বুট

ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার জন্যে এগিয়ে আসে লিওনেল মেসি। বার্সেলোনার হয়ে লিওনেল মেসির ৬৪৪ তম বুট নিলাম করা হবে। 

আগামী ১৯ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত নিলাম প্রতিষ্ঠান ক্রিস্টির ওয়েবসাইটের মাধ্যমে যে কেউ লিওনেল মেসির এই বুট কেনার জন্য বিট করতে পারবেন। ধারণা করা হচ্ছে, মেসির এই নিলাম থেকে অন্তত ৮০ লাখ টাকা পাওয়া যাবে। 

Advertisements

বিশ্বের অন্যতম ধনী ফুটবলার লিওনেল মেসি করোনার শুরু থেকে জনকল্যানমূলক কাজে নিয়োজিত। চিকিৎসা সরঞ্জাম কেনার জন্য এক মিলিয়ন ইউরো দিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। 

এবারও ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশুদের সাহায্যের জন্যে এগিয়ে এসেছে লিওনেল মেসি। এর আগে তিনি ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে নিয়োজিত থেকে অনেক কাজ করেছেন। এখন তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার জন্য অর্থ সংগ্রহে কাজ করছেন। এজন্য প্রশংসার দাবিদার অবশ্যই রাখে আজেন্টাইন এ তারকা লিওনেল মেসি। 

২০২০ সালের ২২ ডিসেম্বর বার্সেলোনার হয়ে এক মাইলফলক সৃষ্টি করেন। রিয়াল ভায়াদোলিদের বিপক্ষে তার ৬৪৪ তম গোল করেন বিশ্ববিখ্যাত এই ফুটবলার লিওনেল মেসি। আর কোনো ক্লাবের হয়ে রেকর্ড গোল করা লিওনেল মেসিই প্রথম। এর মধ্য দিয়েই তিনি পেলের সন্তোসের করা ৬৪৩ তম গোলের রেকর্ড। 

বিশ্ব রেকর্ড গোলের সেই বুট কোথায় ছিলো?

সেই ম্যাচের পরেই লিওনেল মেসি  বুটটি দিয়ে দেন কাতালান ন্যাশনাল আর্ট মিউজিয়ামকে। যে মিউজিয়ামে স্থান পেয়েছে বিশ্বের সব আশ্চর্য নিদর্শন। আর সেখানেই স্থান পেয়েছিলো মেসির সেই বুটটিও। আর সেই বুট-ই নিলামে তুলতে যাচ্ছে কাতালান মিউজিয়ামটি। এরই মধ্যে নিলামের ঘোষণা  ক্রিস্টির নিলাম প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে। 

১৯ থেকে ৩০ এপ্রিলের মধ্যে যে কেউ পৃথিবীর যেকোনো স্থান থেকে বুটটি কেনার জন্য আবেদন করতে পারবেন। নিলাম প্রতিষ্ঠানটি আশা করছে, বড় অংকের অর্থ পাওয়া সম্ভব এই নিলামে। অন্তত ১ লাখ ডলারের মতো উঠবে মেসির বুটটি। যার পুরো অর্থ-ই দিয়ে দেওয়া হবে বার্সেলোনার ভ্যান হেবরন ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার জন্যে। 

এমন কাজে অংশ নিয়ে মেসি নিজেও বেশ তৃপ্ত। তিনি বলেন, ‘এক ক্লাবের হয়ে ৬৪৪ গোলের রেকর্ড গড়ে আমি খুব খুশি হয়েছিলাম। কিন্তু সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো যে সব শিশু জীবন নিয়ে লড়ছে তাদের জন্য কিছু করা। আশা করি এ নিলাম তাদের সহায়তা করবে। এটাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। এই উদ্যোগে যারা এগিয়ে এসেছেন সবাইকে ধন্যবাদ। এটা আমার কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ।’

অ্যাডিডাসের নেমেজিজ মেসি ১৯.১ মডেলের বুট দুটিতে আছে মেসির অটোগ্রাফ। এছাড়া মেসির স্ত্রী রোকুজ্জো ও তিন সন্তান থিয়াগো, মাত্তেও এবং সিরোর জন্ম তারিখও বিশেষভাবে লিখা আছে সেই বিশেষ বিট জোড়ায়।

আঁধার আলো/এএমডি