করোনায় মারা গেলে ৫০ লাখ টাকা পাবে ব্যাংকাররা

সারাদেশে লকডাউন দিয়েছে সরকার। কিছু কিছু প্রতিষ্ঠান ছাড়া দোকানপাঠ সহ প্রায় সকল কিছু বন্ধ রয়েছে ঘোষিত লকডাউনে। আর খোলা থাকার তালিকায় আছে ব্যাংকগুলো। লকডাউন ঘোষণা দিলে, ব্যাংকগুলো প্রথমে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। পরবর্তীতে বাংলাদেশ ব্যাংক জরুরি বৈঠক করে ব্যাংকগুলো খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত লেনদেন চলবে। কিন্তু ব্যাংক শাখাগুলো খোলা থাকতে ৩ টা পর্যন্ত। এতে বাড়তি ঝুঁকি নিতে হচ্ছে ব্যাংক কর্মকর্তাদের। 

করোনার এই সংকটকালে তাদের কাজে উৎসাহিত করতে ক্ষতিপূরণ নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সোমবার (১৯ এপ্রিল) বাংলাদেশ ব্যাংক এ সিদ্ধান্ত নেয়। এ বিষয়ে বাংলাদেশের ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ, একটি সার্কুলার জারি করে তা দেশের সকল ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী বরাবর চিঠি দিয়েছে। 

Advertisements

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা, সিনিয়র অফিসার বা সমমান হতে তার চেয়ে ওপরের কর্মকর্তাদের পরিবারের  সদস্য (অবিবাহিত হলে পিতা/মাতা, বিবাহিত হলে স্বামী বা স্ত্রী, সন্তান) ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ পাবেন।

Related Post

ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট অফিসার বা সমমানের কর্মীদের পরিবার পাবে সাড়ে ৩৭ লাখ টাকা। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানে নিয়োগপ্রাপ্ত স্টাফ বা সাব স্টাফ শ্রেণির কর্মীদের পরিবার পাবে ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ।

আঁধারা আলো/এএমডি