হার না মানা মানসিকতায় রোনালদো এগিয়ে বিশ্বের অন্যান্য সব ফুটবলারদের থেকে : ইউরো ২০২০

হার না মানা মানসিকতায় রোনালদো এগিয়ে বিশ্বের অন্যান্য সব ফুটবলারদের থেকে : ইউরো ২০২০

ইউরো 2020 এর গ্রুপ এফকে বলা হয় গ্রুপ অফ ডেথ। যেখানে রয়েছে ফ্রান্স, জার্মানি, পর্তুগাল এবং হাঙ্গেরি। তুলনামূলক সহজ প্রতিপক্ষ হিসেবে আজ পর্তুগালের মুখোমুখি হয়েছিল হাঙ্গেরি। সহজভাবে হারানোর কথা থাকলেও পর্তুগালকে দিতে হয়েছে চরম পরীক্ষা। হাঙ্গেরির ডিফেন্স পর্তুগালকে আটকে রেখেছিল প্রায় শেষ সময় পর্যন্ত। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল হাঙ্গেরির পুসকাস এ্যারেনা স্টেডিয়ামে, যেখানে ধারণ ক্ষমতা অনুযায়ী সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষ প্রবেশের অনুমতি ছিল।

দর্শকের সামনে হাঙ্গেরি নিজেকে তুলে ধরেছিল শুরু থেকেই দারুণভাবে,বিশেষ করে রক্ষণাত্মক ভাবে। ম্যাচের শুরুতেই সহজ সুযোগ পেয়ে যান পর্তুগালের ফরোয়ার্ড ডিয়োগো জোটা। তিনি বলটি পাস দিতে পারতেন রোনালদোকে কিন্তু নিজেই শট নিতে যান। যেটি গোল হয়নি এবং রোনালদো জোটার উপর কিছুটা হতাশ হন। কেননা বলটি পেলে রোনালদোর গোল করার খুব সহজ সুযোগ ছিল।কিছুক্ষণ পর একটি গোল মিস করেন রোনালদো নিজেই।

Advertisements

দ্বিতীয়ার্ধে হাঙ্গেরি কিছুটা আক্রমনাত্মক ফুটবল খেলার চেষ্টা চালায়। ফলস্বরূপ আশিতম মিনিটে হাঙ্গেরির ফরোয়ার্ড শোন একটি গোল পেয়ে যান। কিন্তু গোলটি অফসাইড এর কারণে বাতিল হয়ে যায়।শেষ দশ মিনিটে ছিল ম্যাচটির সবচেয়ে আকর্ষনীয় মুহূর্তগুলি। ৮৩ তম মিনিটে পর্তুগালকে এগিয়ে দেন তাদের লেফট ব্যাক গুয়েরেরো। কিছুক্ষণ পরেই পর্তুগাল পেয়ে যায় একটি পেনাল্টি।

পেনাল্টিতে গোল মিস করেননি রোনালদো। সহজেই গোলকিপার কে পরাস্ত করেন। ঠিক কিছুক্ষণ পরই খেলায় আসে একটি দুর্দান্ত গোল।যেখানে একের পর এক দুর্দান্ত পাসিং খেলে হাঙ্গেরির ডিফেন্স কে চুরমার করে দেয় পর্তুগাল টিম ।

দারুন ওয়ান টু ওয়ান পাসিং খেলে দলকে এগিয়ে দেন আবারো ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। গোলটি ছিল দেখার মতো। শেষ দুই গোলই এসেছে ৫ মিনিটের মধ্যে এবং দুইটি গোলই করেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।একেতো সহজ প্রতিপক্ষের সাথে খেলা, তার উপর গোল না বের করতে পারার কষ্ট, কিন্তু তারপরও পর্তুগাল থেমে থাকেনি।

বিশেষত ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো,তিনি দেখিয়েছেন তার কারিশমা ম্যাচের শেষ মুহূর্তে। তিনি হতাশ হন নি বরং এনে দিয়েছেন তাদের কাঙ্ক্ষিত জয়। দুইটি গোল করেই অতিক্রম করে গেছেন ইউরোর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি গোল করা প্লেয়ার মিশেল প্লাতিনির রেকর্ডকে।ইতালির মিশেল প্লাতিনির এর আগের রেকর্ডটি ছিল সর্বোচ্চ ৯ গোলের।

বর্তমানে রেকর্ডটির মালিক ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, যিনি করে ফেলেছেন সর্বমোট ১১ টি গোল এবং নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়।জাতীয় দলের হয়ে সর্বোচ্চ গোল করার দিক দিয়েও রোনালদো প্রায় ধরেই ফেলেছেন ইরানের আলি দেই কে,যিনি দেশের হয়ে করেছিলেন ১০৯ টি গোল,যেখানে রোনালদো এখন পর্যন্ত করে ফেলেছেন ১০৬ টি গোল।

আলি দেই এর রেকর্ড ধরে ফেলা রোনালদোর জন্য এখন শুধুমাত্র সময়ের ব্যাপার। সত্যিই রোনালদো এমন প্লেয়ার যিনি কখনো হার মানতে শিখেননি এবং যত বছর তিনি ফুটবলে আছেন আশা করা যায় তিনি বাকি সমস্ত রেকর্ড গুলোও ছাড়িয়ে যাবেন। রোনালদোর হার না মানা মানসিকতা বিশ্বের অন্যান্য সব ফুটবলারদের জন্য ,এমনকি পৃথিবীর সকল মানুষদের জন্যই অনুপ্রেরণাময়।

#potugal vs_hungary #Euro_2020 #cr7

আঁধার আলো/ শহীদ আফ্রিদি সবুজ